খেলাধুলা

রেকর্ড ৬ষ্ঠ ব্যালন ডি’অর জিতলেন মেসি

ইউরোপিয়ান গণমাধ্যমগুলোতে ফাঁস হওয়া তালিকাতেই দেখা যাচ্ছিলো, এবারের ব্যালন ডি অর জিতেছেন মেসি। তবু আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসার আগপর্যন্ত নিশ্চিতভাবে কিছু বলার সুযোগ ছিলো না। তবে প্যারিসে ততক্ষণে লিওনেল মেসির সৌরভ ছড়িয়ে পড়েছে। ২-৩ দিন ধরেই ফ্রান্স ফুটবলের এই সম্মাননা মেসি পাচ্ছেন বলে আলোচনা চলছে। প্যারিসের থিয়েটার ডি চ্যাটেলেটে গুঞ্জন সত্যি হলো। মেসি ক্যারিয়ারে আরো একবার জিতলেন ব্যালন ডি’অর (পুরুষ বর্ষসেরা)। এটা রেকর্ড ও ইতিহাসে প্রথম ফুটবলার হিসেবে ৬ষ্ঠবারের মত। মোট পাঁচবার ব্যালন ডি’অর পেয়ে মেসির সঙ্গে লড়াইয়ে ছিলেন রোনালদো। সোমবার গভীর রাতে তাকে পেছনে ফেলে দিলেন ৩২ বছরের মেসি। নারীদের বর্ষসেরা (ব্যালন ডি’অর) হয়েছেন মেগান রাপিনো।

নিজের অসমান্য অর্জনে উচ্ছ্বসিত বার্সেলোনার কিংবদন্তি। পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে লুকাননি নিজের আবেগ, অনুভূতি। কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন প্রিয় ক্লাব, সতীর্থ, কর্মকর্তা ও পরিবারকে।

এবারের তালিকায় ফেভারিট মেসি গত মৌসুমে অসাধারণ সময় কাটিয়েছেন। লা লিগার শিরোপা অর্জনের পাশাপাশি কোপা দেল রে কাপের ফাইনাালে তুলেছেন তিনি। সবমিলিয়ে গত মৌসুমে বিশ্বের সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনি। ৫০ ম্যাচে গোল করেছেন ৫১টি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও ১২ গোল নিয়ে গোলদাতাদের তালিকায় শীর্ষে ছিলেন তিনি। তবে কোপা আমেরিকায় বিতর্কিত ম্যাচে দেশের হয়ে সেমি ফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয়েছিলো মেসিকে।

অন্যদিকে গেল চ্যাম্পিয়ন্স লিগে লিভারপুলকে শিরোপা জেতানোর পেছনে অনবদ্য অবদান রেখেছিলেন ভ্যান ডাইক। মূলত এবার মেসি ও ভ্যান ডাইকের মধ্যেই চলছিলো সর্বোচ্চ দ্বৈরথটি। তবে পুরস্কার বিতরণী জমকালো এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না রোনালদো।

অবশ্য রোনালদোও গত মৌসুমটা খারাপ কাটাননি। জুভেন্টাসের হয়ে প্রথম মৌসুমেই ইতালিয়ান সিরি আ শিরোপার পাশাপাশি জেতেন উয়েফা সুপার কাপ। পর্তুগালের জার্সিতেও তিনি ছিলেন সফল। জেতেন দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক শিরোপা। নতুন চালু হওয়া নেশন্স লিগের ফাইনালে হারান ভ্যান ডাইকের নেদারল্যান্ডসকে। পুরো মৌসুমে ৪৩ ম্যাচ খেলে রোনালদো গোল করেন ২৮টি।

২০১৯ ব্যালন ডি’অরের ৩০ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা: সাদিও মানে (লিভারপুল/সেনেগাল), সার্জিও আগুয়েরো (ম্যানচেস্টার সিটি/আর্জেন্টিনা), ফ্রেংকি ডি ইয়ং (বার্সেলোনা/নেদারল্যান্ডস), হুগো লরিস (টটেনহ্যাম হটস্পার/ফ্রান্স), দুসান ট্যাডিচ (আয়াক্স/সার্বিয়া), কাইলিয়ান এমবাপে (পিএসজি/ফ্রান্স), ট্রেন্ট অ্যালেকজান্ডার-আর্নল্ড (লিভারপুল/ইংল্যান্ড), ডনি ফন ডি বিক (আয়াক্স/নেদারল্যান্ডস), পিয়েরে-এমেরিক আওবামায়েং (আর্সেনাল/গ্যাবন), মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগান (বার্সেলোনা/জার্মানি), ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো (জুভেন্টাস/পর্তুগাল), অ্যালিসন বেকার (লিভারপুল/ব্রাজিল), মাথিয়াস ডি লিট (জুভেন্টাস/নেদারল্যান্ডস), করিম বেনজেমা (রিয়াল মাদ্রিদ/ফ্রান্স), জর্জিনিয়ো ভিনালডাম (লিভারপুল/নেদারল্যান্ডস), ভার্জিল ফন ডাইক (লিভারপুল/নেদারল্যান্ডস), বার্নার্দো সিলভা (ম্যানচেস্টার সিটি/পর্তুগাল), সন হিউং-মিন (টটেনহ্যাম হটস্পার/দক্ষিণ কোরিয়া), রবার্তো লেওয়ানডস্কি (বায়ার্ন মিউনিখ/পোল্যান্ড), রবার্তো ফিরমিনো (লিভারপুল/ব্রাজিল), রিয়াদ মাহরেজ (ম্যানচেস্টার সিটি/আলজেরিয়া), লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা/আর্জেন্টিনা), কেভিন ডি ব্রুইনে (ম্যানচেস্টার সিটি/বেলজিয়াম), কালিদু কলিবালি (নাপোলি/সেনেগাল)অ্যান্তনিও গ্রিজম্যান (বার্সেলোনা/ফ্রান্স), মোহামেদ সালাহ (লিভারপুল/মিশর)এডেন হ্যাজার্ড (রিয়াল মাদ্রিদ/বেলজিয়াম), মার্কিনহোস (পিএসজি/ব্রাজিল)রহিম স্টার্লিং (ম্যানচেস্টার সিটি/ইংল্যান্ড) ও হুয়াও ফেলিক্স (অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ/পর্তুগাল)।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker